সোমবার , 17 ডিসেম্বর 2018

সবুজ সারের উপকারিতা ও ব্যবহার পদ্ধতি

কোন জমিতে গাছ জন্মিয়ে ঐ স্থানে অথবা অন্য কোথাও থেকে সংগ্রহ করে ফুল আসার আগে সবুজ অবস্থায় মাটির সাথে মিশিয়ে ও পচিয়ে যে সার তৈরী করা হয় তাকে সবুজ সার বলে ।আগের দিনে চাষীভায়েরা মাটির উর্বরতা শক্তি বাড়ানোর জন্য সবুজ গাছপালা জমিতে মিশিয়ে দিতেন । কিন্ত রাসায়নিক সার ব্যবহারের প্রচলন হওয়ায় আস্তে আস্তে সবুজ সারের ব্যবহার উঠে যাচেছ । ফলে মাটির গুণাগুণ দিন দিন কমে যাচ্ছে। তাই সবুজ সার ব্যবহার বৃদ্ধি করে একদিকে যেমন কৃষি উৎপাদন বাড়ানো যায় তেমনি আবার উৎপাদন খরচ কমে যায় ।

সবুজ সার ব্যবহারের উপকারিতা

উত্তরঃ সবুজ সার মাটিতে জৈব পদার্থে যোগ করে ফলে গাছের প্রয়োজনীয় সকল খাদ্য উপাদানের পরিমাণ বৃদ্ধি পায় ।এই সার মাটির পানি ধরে রাখার ক্ষমতা বাড়ায় ।মাটিকে ঝুরঝুরে করে এবং মাটির ভিতর বাতাস প্রবেশ সহজ করে ফলে গাছের মুল ভালভাবে বৃদ্ধি পেতে পারে । এই সার ব্যবহারের ফলে মাটিতে গাছের জন্য যে উপকারী জড়িয়ে থাকে তাদের কার্যকারিতা বৃদ্ধি পায় । এই সার মাটির খাদ্যপাদান নীচের স্তর থেকে উপর নিয়ে আসে । সবুজ সার সেই সময় জন্মানো হয় যখন মাঠে কোন ফসল থাকে না ফলে বৃষ্টির পানি মাটিতে পড়ে যাতে মাটির উপরিভাগ ক্ষয়ে যেতে পারে না । সবচেয়ে রড় কা সবুজ সার ব্যবহারে ফলন বৃদ্ধি পায় । পরীক্ষা করে দেখা গেছে যেখানে প্রতি বিঘায় ১২-১৪ মন ধান হয় সেখানে সবুজ সার ব্যবহার করে প্রতি বিঘায় ১৭ মন ফলন পাওয়া যায় ।

সবুজ সার হিসাবে ব্যবহার ‌উপযোগী গাছ
যে সমস্ত গাছের মুলে গুটি হয়,কচি অবস্থায় কান্ড ও পাতা রসালো এবং শিকড় গভীরে প্রবেশ করে সেই সমস্ত গাছ যেমন ধৈঞ্চা, শন, বরবটি, সীম, খেসারী, মুগ, মাষকলাই, সয়াবিন, মসুর, ছোলা, মটর, অড়হর প্রভহতি সবুজ সার হিসাবে ব্যবহ্নত হয় । তবে সাধারণতঃ ধৈঞ্চা ও শন সবুজ সার হিসাবে ব্যবহ্নত হয়ে থাকে। মাঝারি উচু জমিতে শন এবং অপেক্ষাকৃত নীচু জমিতে ধৈঞ্চা সবুজ সার হিসাবে ব্যবহ্নত হয় ।

সবুজ সার তৈরীর পদ্ধতি

বৃষ্টির পরে মাটিতে জো আসার পর ২-৩ টি চাষ ও মই দিয়ে জমি তৈরী করতে হয়। তারপর জমিতে পরিমাণমত বীজ বুনতে হয় । এই চারা বড় হয়ে দেড় থেকে দুই মাস বয়সে যখন গাছে ২/১ টি ফুল আসতে শুরু করে তখন মই দিয়ে মাটিতে শুইয়ে দিতে হয় । তারপর লম্বা কাচি বা দা দিয়ে ২/৩ টি টুকরো করে লাংগল দিয়ে ২/৩টি চাষ ও মই দিয়ে মাটিতে ভালভাবে মিশিয়ে দিতে হয় । জমিতে পানি অবস্থায় থাকলে ১০/১২ দিনের মধ্যে পচে মাটির সামমিশে যায় । সবুজ সার চাষ করলে তেমন কোন সার দিতে হয় না তবে টিএসপি সার ব্যবহার করলে গাছের মুলে গুটির পরিমাণ বেশী হয় এবং পরিমাণ টিএসপি পরবর্তী ফসলে কম দিলেই চলে।
আমন ধানের জমিতে সবুজ সার চাষের সময়
আমন ধানের জমিতে বৈশাখ মাস থেকে জৈষ্ঠা মাসের প্রথম সপ্তাহ এরই মধ্যে বীজ বুনতে হয় তবে বৃষ্টি হতে দেরী হলে বা অতি বৃষ্টি হলে জৈষ্ঠা মাসের তৃতীয় সপ্তাহ পর্যন্ত বোনা চলে । রাসায়নিক সার বেশী পরিমাণ ব্যবহার করলে ফসলের ক্ষতি হওয়ার সম্ভাবনা থাকে । পক্ষান্তরে সবুজ সারের এ ধরণের কোন সম্ভাবনা নেই বরং জমিতে কোন ক্ষতিকর বিষক্ত পর্দাথ থাকলে সবুজ সার তা নষ্ট করে ফেলে । এই সার ব্যবহারে বেলে মাটিরও গুণাগুণ উন্নত করা য়ায় । এই সার সহজে ও সস্তায় নিজের জমিতে কৃষক ভাইয়েরা তৈরী করতে পারেন । তাই রাসায়নিক সারের ব্যবহার কমিয়ে সবজু সার ব্যবহার করে কৃষক ভাইরা অনেক লাভবান হতে পারেন ।

BIGTheme.net • Free Website Templates - Downlaod Full Themes